কলকাতায় শ্রদ্ধার সহিত পালিত হল ১৯মে বাংলা ভাষা দিবস 

খবর এইসময় ,নিজস্ব প্রতিনিধি ,কলকাতা :১৯ মে বাংলা ভাষা শহিদ দিবস উদযাপন ও কবিতাপাঠের আসর বসলো  রাষ্ট্রগুরু সুরেন্দ্রনাথ পার্কের নিকট কার্জন পার্কে এবং   ধর্মতলায় শুরু হয় বিকেলে । বিদ্যাসাগর মূর্তির পাদদেশে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, প্রাক্তন উপাচার্য ড. আনন্দদেব মুখার্জী, আন্তর্জাতিক বাংলাভাষা সংস্কৃতি সমিতির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন আবৃত্তিকার ও অধ্যাপিকা নাতাশা দাশগুপ্ত, কথাশিল্পী রুবী গান্ধী, আবৃত্তি আলেখ্য নদিয়া জেলার পরিবেশন ছিল চোখে দেখার মতো।
পরিচালনা করেন প্রীতম ভট্টাচার্য।
সংগীত পরিবেশন করেন মুকুল চক্রবর্তী।
কবিতা পাঠে ছিলেন কবি সুজিত বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বপন পাল, গোপাল বিশ্বাস, ধীশঙ্কর সেনগুপ্ত, অপূর্বকুমার কুন্ডু, হাননান আহসান, তাপস সাহা, হেমন্ত রায়, প্রদীপকুমার পাল, মেঘনাথ বিশ্বাস, জ্যোতির্ময় চক্রবর্তী, অরূপ বন্দ্যোপাধ্যায়, লালমিয়া মোল্লা, জয়দীপ চট্টোপাধ্যায়, শুভেন্দু পালিত, পূজা তালুকদার, হরিশংকর কুন্ডু, শংকর দত্ত, সুমন বিশ্বাস প্রমুখ।
বিশিষ্ট প্রবন্ধকার একরামূল হক শেখ এর বক্তব্য “আসামের বরাক উপত্যকার বাংলা ভাষা আন্দোলন ছিল আসাম সরকারের অসমীয়া ভাষাকে রাজ্যের একমাত্র দাপ্তরিক ভাষা করার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ । যেহেতু ওই অঞ্চলের জনসংখ্যার সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ ছিল বাংলাভাষী। এই গণ আন্দোলনের প্রধান উল্লেখযোগ্য ঘটনাটি ১৯৬১ সালের ১৯ মে ঘটে, সেদিন ১১ জন প্রতিবাদীকে শিলচর রেলওয়ে স্টেশনে প্রাদেশিক পুলিশ গুলি করে হত্যা করে । ভাষা শহিদগণ হলেন— কানাইলাল নিয়োগী, চন্ডীচরণ সূত্রধর, হিতেশ বিশ্বাস, সত্যেন্দ্রকুমার দেব, কুমুদরঞ্জন দাস, সুনীল সরকার, তরণী দেবনাথ, শচীন্দ্র চন্দ্র পাল, বীরেন্দ্র সূত্রধর, সুকোমল পুরকায়স্থ এবং কমলা ভট্টাচার্য। একটা ছোট্ট জিজ্ঞাসা। ১৯ ফেব্রুয়ারিতে ভাষা আন্দোলনকারী হত্যাকারীদের প্রতি বাংলাদেশে বহু মানুষের হৃদয়ে এখনো তীব্র ঘৃণা বহমান। ১৯ মে-র ক্ষেত্রে বিষয়টি কী অবস্থায় আছে কেউ জানালে বাধিত হই।”

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রাক্তন অধ্যাপক ড. আনন্দদেব মুখার্জী, মূল বক্তা বিশিষ্ট ভাষাবিদ ড. রামরমন ভট্টাচার্য, বক্তব্য রাখেন আনসার উল হক, বিজয়কৃষ্ণ নাথ। কবিতা পাঠ জ্যোতির্ময় সরদার, মেঘনাথ বিশ্বাস, প্রবীররঞ্জন মন্ডল, ইভা চক্রবর্তী, প্রণব সেন, নৃপেন চক্রবর্তী প্রমুখ। আবৃত্তি করেন রুবী গান্ধী। সঙ্গীত পরিবেশন করেন মুকুল চক্রবর্তী। এছাড়াও ছিল নৃত্য, কবিতা আলেখ্য ‘কথাশিল্প’।