বিয়ের আগেই যুগলের উপর বজ্রপাত ! মৃত্যু যুবকের, আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে হবু স্ত্রী

 

খবর এইসময়, কলকাতাঃ কলকাতার ময়দানে  ঘটে গেল মর্মান্তিক ঘটনা। শনিবার সন্ধ্যায় বাজ পড়ে প্রেমিকার সামনেই মৃত্যু হল প্রেমিকের। প্রেমিকা গুরুতর জখম হয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি। পুলিশসূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম অজয় মল্লিক(২৭)। আহত বান্ধবীর নাম মণীষা মল্লিক(২০)।অজয়ের বাড়ি কড়েয়া থানা এলাকার লোহাপুলের তাড়িখানা মোড়ে।তিনি একটি স্কুলে অস্থায়ী চাকরি করতেন।আর দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী মনীষার বাড়ি প্রগতি ময়দান এলাকার বিবেকানন্দ পল্লিতে।তবে দু’জনের বাড়ি দু’টি আলাদা থানা হলেও দূরত্ব একেবারেই বেশি নয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

তাঁদের বাড়ির লোকজনেদের থেকে জানা গেল, বেশ ক’য়েক বছর ধরেই দু’জনের সম্পর্ক এবং ঘনিষ্ঠতা।এবছর পূজোর পরই তাঁদের বিয়ের কথা ছিল, সেইমত দুই বাড়ির প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছিল।কিছু দিনের মধ্যেই বিয়ের দিন ও লগ্নের সময় ঠিক করার কথা ছিল দু’বাড়ির মধ্যে। তার আগেই ঘটে গেল এই মর্মান্তিক ঘটনা।
এদিন সকাল থেকেই আকাশ মুখ ভার করে ছিল। দুপুর গড়ালে আকাশ কিছুটা  পরিষ্কার হতেই তারা ধর্মতলায় কেনাকাটার জন্য বাড়ি থেকে বের হন।কেনাকাটা সেরে তাঁরা ময়দানে ঘোরাফেরা করছিলেন।তখন সন্ধ্যে প্রায় সাড়ে ৬টা।হঠাৎই ঝেঁপে বৃষ্টি নামে। বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি শুরু হয়। কোনও নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে তাঁরা মেয়ো রোড ও রেড রোডের মোড়ে একটা লাল ছাতা মাথায় দিয়ে সেনোটাফ(স্মৃতিস্তম্ভ)এর উত্তর দিকের দেয়াল ঘেঁষে দাঁড়ান। খানিক পরেই ব্জ্রপাত।ছিটকে পড়েন দু’জন।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দু’জনই পড়ে ছিলেন সেনোটাফের সিঁড়ির উপর।কাছে গিয়ে দেখা যায়,বাজ পরে ঝলসে যাওয়া যুবকের নিথর দেহ। তরুনীও রক্তাক্ত,তার থুতনির নীচে বজ্রাঘাতে কালশিটে পরেছে তবে তাঁর ঠোঁট নড়ছে। এরপর স্থানীয়রা তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা অজয়কে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহত মণীষার চিকিৎসা চলছে। তবে তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক।বাজ পড়ে এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে ময়দান চত্বরে।  প্রবল বৃষ্টিতে বজ্রপাতের আশঙ্কা থাকেই।ফাঁকা জায়গায় বা কোনও গাছের নীচে না দাঁড়ানো বিপজ্জনক।রাজ্য সরকার ও হাওয়া অফিস বারবার সতর্ক হওয়ার আবেদন জানিয়েও সচেতনতা ফেরেনি। এদিন তার মাশুল দিতে হল প্রেমিক-যুগলকে। এই ঘটনায় দুই পরিবারে বিষাদের ছায়া নেমে আসে। অজয় ও মণীষার বিয়ে চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছিল। আর কিছুদিন পরেই তাঁদের বিয়ে।  কিন্তু চারহাত এক হওয়ার আগেই সব শেষ হয়ে গেল। প্রাকৃতিক দুর্যোগের বলি হলেন প্রেমিক অজয়। আর প্রেমিকা আশঙ্কাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।