বাম ছাত্র সংগঠনগুলির নবান্ন অভিযানে পুলিশি আক্রমণের বিরুদ্ধে যাদবপুর অঞ্চলের প্রতিবাদী মিছিল, যে ইউ এসএফআইয়ের পথ অবরোধ

NABANNA ABHIJAN BY LEFT STUDENTS

 

মদনমোহন সামন্ত,13 সেপ্টেম্বর,কলকাতা : কর্মসংস্থান, বেকার ভাতা প্রদান এবং শিক্ষার খরচ কমানোর দাবিতে বারোটি বাম ছাত্র-যুব সংগঠন সিঙ্গুর থেকে নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার সিঙ্গুর বুড়োশান্তি স্টেশন সংলগ্ন এলাকা থেকে মিছিল শুরু করে তারা আজ শুক্রবার দুপুরে হাওড়া পৌঁছায় নবান্ন’র লক্ষ্যে। বঙ্কিম সেতু, এম জি রোড হয়ে মল্লিক ফটক-এর দিক দিয়ে এগোচ্ছিল তাদের মিছিল। পুলিশের তরফে তাদের অভ্যর্থনার জন্য তৈরি ছিল জলকামান, রোবোকপ, কাঁদানে গ্যাস, লাঠি। সঙ্গে মিছিলের গতিপ্রকৃতি বুঝে নিতে আকাশপথে ড্রোন। মল্লিক ফটক এলাকার বঙ্গবাসী রোডে পুলিশ এবং মিছিলকারী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পুলিশের অতিসক্রিয়তায় আহত হন মিছিলকারী নেতৃবৃন্দসহ বহু ছাত্র-ছাত্রী। পুলিশের মার পড়েছে মিছিল কভার করতে আসা সাংবাদিক এবং আলোকচিত্রীদের উপরেও। আহত হয়েছেন সাংবাদিকরা। ভেঙ্গেছে চিত্র সাংবাদিকদের ক্যামেরা। সিঙ্গুর এলাকায় গত আগস্ট মাস ধরে এসএফআই এবং ডিওয়াইএফআইয়ের সমীক্ষার ফলাফল এবং চাকরিপ্রার্থীদের প্রতীকী আবেদনপত্র নবান্নে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বাম ছাত্র সংগঠনগুলির নবান্ন অভিযান কর্মসূচি ছিল। যে কোন পরিস্থিতির জন্য ছাত্র-ছাত্রীরা মানসিকভাবে প্রস্তুত ছিল। তাদের আটকাতে পুলিশ প্রথমে বলপ্রয়োগ করে। শুরু হয় ধস্তাধস্তি, লাঠিচার্জ। ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান-এর প্রয়োগ করে পুলিশ। মিছিলকারীরা উত্তেজিত হয়ে হাতের সামনে ইঁটপাটকেল যা পান তাই পুলিশের প্রতি প্রয়োগ করতে থাকেন। সেই সঙ্গে চেষ্টা করতে থাকেন ব্যারিকেড ভাঙার। ধুন্ধুমার বেধে যায়। এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। ঘটনায় বহু ছাত্র-ছাত্রী আহত হন। আটক করা হয়েছে বেশ কয়েকজন ছাত্রনেতা ও ছাত্র-ছাত্রীদের। ঘটনার প্রতিবাদে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএফআই ইউনিট সন্ধ্যায় চার নম্বর গেটের সামনে রাজা সুবোধ চন্দ্র মল্লিক রোডে প্রতীকী অবরোধ করে দশ মিনিটের জন্য। কর্মসূচি শেষ করে মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল পুড়িয়ে। একই ঘটনার প্রতিবাদে বামফ্রন্টের কলকাতা এবং দক্ষিণ 24 পরগণা জেলা কমিটির যাদবপুর অঞ্চলের প্রতিবাদী মিছিল বের হয়। মিছিলটি সুকান্ত সেতু থেকে গড়িয়া পর্যন্ত যায় সুদীপ সেনগুপ্ত খোকন ঘোষ দস্তিদার কানাই দে সহ অন্যান্যদের নেতৃত্বে। জানা গিয়েছে, আগামীকাল শনিবার এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবাদ স্বরূপ এসএফআই কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটি ভারতজুড়ে প্রতিবাদী কর্মসূচি নিয়েছে।